শিরোনামঃ

» অভয়নগরে অস্ত্র দেখিয়ে দু”সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে অভিযুক্ত আটক 

প্রকাশিত: ১০. জুন. ২০২১ | বৃহস্পতিবার

বেত্রাবতী ডেস্ক।।যশোরের অভয়নগরে অস্ত্র দেখিয়ে ৩০ বছর বয়সী দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগে বিটু আহম্মেদ (৪০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

তার বিরুদ্ধে নিজ বাড়ির ভাড়াটিয়াকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে উপজেলার মশরহাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

বিটু মশরহাটি গ্রামের মৃত আব্দুল ওহাবের ছেলে। এ ঘটনায় অভয়নগর থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে জানিয়েছে পুলিশ।

ভুক্তভোগী নারী জানান, কয়েক বছর পূর্বে তার স্বামী দুই সন্তান ও তাকে ফেলে রেখে আরেকটি বিয়ে করে অন্যত্র চলে যায়। এরপর থেকে তিনি সন্তানদের নিয়ে একাই ওই বাড়িতে থাকতেন।

আজ বৃহস্পতিবার ফজরের নামাজের পর বাড়ির মালিক বিটু তার ঘরের দরজা খুলতে বলেন। দরজা খুললে মাংস কাটা ধারালো চাপট (চাপাতি) দেখিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেন।

বিষয়টি কাউকে জানালে বিটু তাকে ও তার দুই কন্যা সন্তানকে হত্যা করবে বলে হুমকিও দেন।

সকালে তিনি কৌশলে পালিয়ে অভয়নগর থানায় আসেন এবং বিটু আহম্মেদের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ করেন। ধর্ষক বিটুর দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবি করেন তিনি।

বিটু আহম্মেদ তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার বাড়ির ভাড়াটিয়া ওই নারী আমাকে জড়িয়ে মিথ্যা অভিযোগ করেছেন।

এ ঘটনার সঙ্গে আমি জড়িত নয়। আমার বিরুদ্ধে পরিকল্পিত ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

অভয়নগর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মিলন কুমার মন্ডল জানান, ধর্ষণের অভিযোগে বিটু আহম্মেদ নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে।

ধর্ষণ মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে। ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ওই নারীকে যশোর সদর হাসপাতালে প্রেরণের প্রস্তুতি চলছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫২ বার

[hupso]