শিরোনামঃ

» কাজিপুরে পিতাকর্তৃক মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ, ধামাচাপা দিতে মরিয়া একটি পক্ষ

প্রকাশিত: ২৩. সেপ্টেম্বর. ২০২০ | বুধবার

মিজানুর রহমান মিনু কাজিপুর সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি।। কাজিপুর উপজেলার মনসুর নগর ইউনিয়নের চরশালদহগ্রামে লম্পট পিতা কর্তৃক নিজের মেয়েকে ধর্ষনের অভিযোগ উঠেছে।

ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে মরিয়া একটি পক্ষ। ঘটনাটি অনেক দিন পার হলেও আজ অবধি কোন বিচার না পেয়ে সাংবাদিকদের মাধ্যমে ভুক্তভোগিরা ন্যায় বিচারের দাবি জানিয়েছে।

ধর্ষকপিতা ধর্ষিতা মেয়ে ও তার মাকে হত্যার ভয় দেখিয়ে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে ধর্ষিতা মেয়ে সুলতানা সূত্রে জানা গেছে,চরশালদহ গ্রামের লম্পট বাবা মৃত বসের শেখের পুত্র শাহজাহান আলী (টুক্কু)। একসন্তানের জননী সুলতানা কে বছর খানেক আগে পাশ্ববত্তী গ্রামের স্বামীর ঘর থেকে মেয়ে সুলতানার অমতে নিজের বাড়ি নিয়ে আসে।

এর পর থেকে লম্পট শাহজাহান মেয়ের প্রতি কুদৃষ্টি দেয়।বিষয়টি বুঝতে পেরে মেয়ে সুলতানা তাঁর মাকে বলে দেয়।এতে করে একাধিকবার ধর্শক শাহজাহান ও শাজাহানের স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াঝাটি মারামারি ঘঠে।

এ নিয়ে শাহজাহানের ভাই ভাতিজাদের মধ্যে কয়েকবার দেনদরবার হয়।

ঘটনা জানাজানির ভয়ে ভাই ভাতিজারা শাহজাহান কে শাসন না করে ঘটনা ধামাচাপা দিয়ে রাখে।

উল্লেখ্য গত ৫ আগষ্ট ২০২০ দিবাগত রাতে সুলতানার মা বাড়িতে না থাকার সুযোগে লম্পট শাহজাহান মেয়েকে ঘরে একাপেয়ে অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করে।

পরদিন এঘটনা সুলতানা মায়ের কাছে বললে সুলতানার মা,সুলতদানার চাচা, আফজাল ও কামাল হোসেনকে ঘটনা জানায়।

এতে শাহজাহান ক্ষিপ্ত হয়ে মা, মেয়েকে মারধোর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়ে নিজেও গা ঢাকা দেয়।

এবিষয়ে ধর্ষক শাহজাহানের ভাই কামাল ও আফজালের সাথে টেলিফোনে কথা বললে জানান, তার ভাই খুব খারাপ কাজ করেছে। বিষয়টি পত্রিকায় না লেখার জন্য অনুরোধ জানিয়ে বলেন, বিষয়টি বসে মিমাংসা করা হবে বলে উল্লেখ করেন।

স্থানীয় ৩ নং ওয়ার্ড মেম্বর জাহিদ ইসলাম মনির ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,লম্পট শাহজাহান কে খোঁজা হচ্ছে এবং তাঁর ভাই ভাতিজাদের আচরণও রহস্যজনক বলে উল্লেখ করেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৩৭ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
মিজানুর রহমান মিনু।।বঙ্গমাতা সাংস্কৃতিক জোট এর কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি…