শিরোনামঃ

» ঘুর্ণিঝড় ইয়াসে প্লাবিত হওয়ার শংঙ্কা, বন্দর ও সুন্দরবন উপকু’ল অঞ্চলে দুর্যোগপুর্ন আবহাওয়া

প্রকাশিত: ২৬. মে. ২০২১ | বুধবার

মোংলা প্রতিনিধি।।যতই সময় অতিবাহিত হচ্ছে ততই উপকুলের দিকে ধেয়ে আসছে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট হওয়া ঘুর্ণিঝড় ইয়াস। নদী ও সাগর প্রচন্ড উত্তল।

যার প্রভাবের কারনে মোংলা বন্দরে ৩ নাম্বার স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

দুর্যোগপুর্ন আবহাওয়ার ফলে হঠাৎ সকাল থেকে মুষলধারে বৃষ্টি শুরু হওয়ায় এখানকার মানুষ ঘর থেকে নামতে পারছেনা।

অপরদিকে, কখনও হালকা ও আবার কখনও ভারী বৃষ্টির ফলে বন্দরে অবস্থানরত বানিজ্যিক জাহাজ থেকে পণ্য খালাস কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

বঙ্গোপসাগরে বায়ুচাপের আধিক্য বিরাজ করায় বুধবার সকালেও সুন্দরবন উপকূল অঞ্চলে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছে। থেমে থেমে কখোনও মাঝারী আবার মুষলধারেও বৃষ্টি হচ্ছে। উপকূলীয় এলাকায় প্রচন্ড বাতাস ছাড়াও বিরাজ করছে দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া।

ঘুর্ণিঝড়টি পুর্ণিমার ভরাগোনে সৃস্টি হওয়ায় স্বাভাবিকের তুলনায় ৩ থেকে সাড়ে ৩ ফুট পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নদীর পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় সুন্দরবনসহ উপক’লীয় নিন্মাঞ্চল এলাকায় ঢুকে পরেছে পানি। এ পানি ৩ থেকে ৬ ফুট পর্যন্ত বৃদ্ধি পেতে পারে বলে জানায় মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার।

এদিকে ঘুর্ণিঝড় মোকাবেলায় সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে উপজেলা প্রশাসন। প্রস্তুত রেখেছে সিপিপি স্বেচ্ছাসেবকদের। কন্টোল রুমের মাধ্যমে উপকুলীয় এলাকার সব কিছুই পর্যবেক্ষ করছে উপজেলা প্রশাসন।

নৌবাহিনী, কোষ্টগার্ড ও বন বিভাগ তাদের নৌযান সমুহ নিরাপদে সারিয়ে রেখেছে। সুন্দরবনে ঝুকিপুর্ন ৮টি অফিসের বনরক্ষীদের তাদের অফিস থেকে সরিয়ে আনা হয়েছে নিরাপদ স্থানে বলে জানায় বন বিভাগ।

এদিকে বৈরী আবহাওয়া আর বৃষ্টির ফলে মোংলা বন্দরে অবস্থানরত বানিজ্যিক জাহাজ থেকে পণ্য খালাস কাজ ব্যাহত হচ্ছে।

আজ বুধবার পর্যন্ত এ বন্দরে সার, কিংকার, পাথর, গ্যাস, ফাই আ্যাশসহ ১১টি বাণিজ্যিক জাহাজ পণ্য খালাসের অপেক্ষায় এখানে অবস্থান করছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৪ বার

[hupso]