শিরোনামঃ

» ঝিকরগাছায় মনিরামপুরের যুবকের মরদেহ উদ্ধার মামলায় ২জন আটক

প্রকাশিত: ২৩. মে. ২০২১ | রবিবার

বিল্লাল হুসাইন।।ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী ইউনিয়নের গদখালীর বেলতলা নামক স্থানে শুক্রবার রাতে পাওয়া পার্শ্ববর্তী মনিরামপুর উপজেলার মাহমুদকাটি গ্রামের আব্দুল মোতালেব @ ভূট্টো ’র ছেলে পিয়ার আলী @ আকাশ (২০) এর মরদেহ। নিহতের ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহতের পিতা আব্দুল মোতালেব @ ভূট্টো (৫৫) বাদি হয়ে ঝিকরগাছা থানাতে শনিবার একটি এজাহারনামীয় মামলা করেন। মামলা নং ১৩।

উক্ত মামলায় ঝিকরগাছা উপজেলার গদখালী ইউনিয়নের বেনেয়ালী মোড়লপাড়া গ্রামের শরিফুল ইসলামের ছেলে হাসান আলী ( ২৫) ও হাসান আলীর স্ত্রী মুন্নী বেগম (২১) সহ আরো ৭/৮ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে মামলা করেন।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, বাদি (আব্দুল মোতালেব @ ভূট্টো) এর বড়ছেলে পিয়ার আলী @ আকাশ (২০) ঢাকায় তুলা মিলে কাজ করে। গত ০৭ মে ঢাকা থেকে বাড়িতে এসে বাদির সাথে থেকে মাঠে কাজ করতো।

২১মে বিকাল অনুমান ৪টার দিকে পিয়ার আলী @ আকাশ তার বড় বোনের বাড়িতে বেড়াতে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি হতে বের হয়। ২২মে রাত ৯টার সময় বাদির ব্যবহৃত ফোনে বাদির ছেলে (পিয়ার আলী @ আকাশ) এর ব্যবহৃত ফোন থেকে বাদিকে ফোন দিয়ে বাদির ছেলে অসুস্থ্যতার কথা বলে এবং বাদির ছেলে ঝিকরগাছা থানাধীন বেনেয়ালী তেল পাম্পের পাশে রাস্তায় পড়ে আছে বলে জানায়।

বাদি এই সংবাদ পেয়ে বাদির শ্যালক ইমরান (৩৫) ও মামাতো ভাই পান্না (৩০) সাথে নিয়ে দ্রুত উক্ত স্থানে এসে বাদি তার ছেলেকে খুঁজে না পেয়ে উক্ত স্থানের আশে পাশে ছেলেকে খুঁজতে থাকে। রাত অনুমান ৩টা ১৫মিনিটের সময় বেনেয়ালী উত্তরপাড়া বেলেতলা মাঠ নামক স্থানে যশোর-বেনাপোল মহাসড়কের দক্ষিণ পাশে পুলিশ ও স্থানীয় জনগণের ভিড় দেখে আগিয়ে গিয়ে ধুলো মাটির মধ্যে একটি মৃত দেহ পড়ে থাকতে দেখে এবং মৃত লাশটি বাদির ছেলে বলে সনাক্ত করেন।

থানা পুলিশ বাদির ছেলের লাশের সুরতহাল রিপোর্ট প্রস্তুতের জন্য যশোর ২৫০ শয্য জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর পরে বাদি তার ছেলের মৃত্যুর ব্যাপারে স্থানীয় ভাবে খোজ খবর নিয়ে জানতে পারে বাদির ছেলে ২১মে রাত রাত ৯টা হতে ১২টার মধ্যে ০১ ও ০২ নং আসামীর বাড়ীতে অবস্থান করাকালীন আসামীরা পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে একই উদ্দেশ্যে অজ্ঞাত ৭/৮জন আসামীর সহযোগিতায় আসামীরা বাদির ছেলেকে হত্যা করে লাশ গুম করার জন্য আসামীরা সবাই একত্রিত হয়ে বেনেয়ালী উত্তরপাড়া বেলেতলা মাঠ নামক স্থানে ধুলো মাটির মধ্যে ফেলে রাখে। খুনের ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে থানা পুলিশ ০২জনকে আটক করেছে।

আটকৃতরা হলো উপজেলার গদখালী ইউনিয়নের বেনেয়ালী গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সেলিম হোসেন বাবু ও হযরত আলীর ছেলে শহিদুল ইসলামকে ২২মে রাতে আটক করে এবং ২৩মে দুপুরে আসামীদ্বয়কে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেন।

এ ঘটনার বিষয়ে থানা পুলিশ অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক সংবাদকর্মীদের জানান, পিয়ার আলী @ আকাশকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

শনিবার সকালে সেলিম হোসেন বাবু ও শহিদুল ইসলাম এলাকাবাসীর মধ্যে প্রচার করেন গরু চুরি করতে এসে গণপিঠুনির স্বিকার হয়ে গরুচোর মারা গেছে।

তবে আমরা তদন্তকরে দেখেছি সেলিম হোসেন বাবু ও শহিদুল ইসলামের বাড়িতে কোন গরু নেই। তবুও তারা পিয়ার আলী @ আকাশকে পিটিয়ে মেরেছে।

কিন্তু প্রকৃত ঘটনার সাথে প্রেমজ বা মেয়েলি ঘটনাকে কেন্দ্রকরে ঘটতে পারে বলে একটু একটু মনে হচ্ছে। তবুও ভালো ভাবে আমাদের পুলিশের তদন্তে প্রকৃত ঘটনা উৎঘাটনের চেষ্টা চলছে।

২৩মে দুপুরে আসামীদ্বয়কে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে এবং আমাদের পক্ষ হতে প্রকৃত ঘটনা বের করতে বিজ্ঞ আদালতে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করা হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪০ বার

[hupso]