শিরোনামঃ

» দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে প্রার্থী হলেই দল থেকে বহিস্কার– খুলনা সিটি মেয়র 

প্রকাশিত: ২৭. নভেম্বর. ২০২০ | শুক্রবার

মোংলা প্রতিনিধি।।মোংলা পোর্ট পৌর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে পৌরসভার ১-২-৩ নম্বর ওর্য়াডের কর্মী সমাবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

খুলনা সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, ২০১১ সালে মোংলা পৌরসভার নির্বাচনে নিজেদের ভুলের কারনে আওয়ামীলীগের প্রার্থীরা জিততে পারে নাই। দীর্ঘ ১০ বছর ওই বিএনপি জামাতের লোকেরাই পৌরসভা নিয়ন্ত্রন করেছে।

নিজেদের একাধিক প্রার্থী থাকায় পৌরসভার সবগুলো ওয়ার্ডেই বিএনপি জামায়াতের কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছে। এবার পৌরসভা নির্বাচনে দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। তারাই মেয়র এবং কাউন্সিলর পদে নির্বাচন করবেন। কেউ যদি দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করতে চান তাহলে নিজ দায়িত্বে করবেন। সংগঠনে তাদের আর জায়গা দেয়া হবেনা। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগ সরকার ২০ বছর ধরে ক্ষমতায়।

মোংলা বন্দরের যত উন্নয়ন সব আওয়ামীলীগ সরকার করেছে । আর পৌরবাসী ভোট দিয়েছে বিএনপির লোকজনকে। আর তারা নির্বাচিত হয়ে পৌরবাসীর জন্য কোন কাজ করেনি। শুধু মিথ্যা বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় সরকারি টি এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে পৌরসভার ১,২, ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বিশাল কর্মীসমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমানের সভাপতিত্বে কর্মী সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সুনীল কুমার বিশ্বাস,উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, বাগেরহাট জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি আলহাজ্ব ইদ্রিস আলী ইজারাদার, ভাইস চেয়ারম্যান  ইকবাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক  ইব্রাহিম হোসেন, পৌর আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আলহাজ্ব শেখ আব্দুস সালাম, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, আওয়ামী লীগ নেতা চাদপাই ইউপি চেয়্যারম্যান মোল্লা তারিকুল ইসলাম প্রমূখ।

তালুকদার আব্দুল খালেক আরো বলেন, পৌর নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থী নির্বাচন করবেন কেন্দ্রীয় কমিটি। আর কাউন্সিলর পদে আমি এবং এমপি হাবিবুন নাহার এখানকার দলীয় নেতাকর্মী দের মতামত নিয়ে প্রার্থী নির্বাচন করবো। দল যাদের নমিনেশন দেবে তারাই নির্বাচন করবেন।

দলের কর্মীদের উদ্দেশ্যে মেয়র খালেক বলেন, দলের সিদ্ধান্তের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আপনারা আপনাদের মনোনিত প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করবেন। যারা দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করবে তাদেরকে বয়কট করবেন।

কর্মীসমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন পৌর যুবলীগের সভাপতি এস এম কবির, সাধারন সম্পাদক শেখ আল মামুন,  নুর আলম জিকু, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা ফিরোজ শাহ্ সহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মহিলালীগ, যুব মহিলালীগ ও ছাত্রলীগ সহ বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দ ও কর্মী সমার্থকরা ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১২৫ বার

[hupso]