এই আসনে ভোটের ফল নিয়ে নাটকীয়তা তৈরি হওয়ার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তিনি এ অভিযোগ করেন বলে জানিয়েছে আনন্দবাজার পত্রিকা।মমতা বলেন, ‘নন্দীগ্রামের মানুষের রায় মেনে নিচ্ছি। কিন্তু ওখানে ভোট লুঠ হয়েছে। আদালতে যাব আমরা।’

নন্দীগ্রামে মমতা জিতেছেন, নাকি শুভেন্দু অধিকারী জিতেছেন তা নিয়ে ধোঁয়াশা দেখা দেয় সন্ধ্যায়। সংবাদসংস্থা এএনআই টুইট করে জানায়, হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পরে ১২০০ ভোটে জিতেছেন মমতা। কিন্তু পরে জানা যায় শুভেন্দু জিতেছেন। তিনি নিজেই জানান সে কথা।

রোববার ভারতীয় সময় সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে ভোটগণনা। সকাল থেকে ভোটের খবরে বড় আকর্ষণ ছিল নন্দীগ্রাম। সেখানে দীর্ঘ সময় পিছিয়ে ছিলেন মমতা। তবে বেলা ২টার পর থেকে পরিস্থিতি পাল্টাতে থাকে। ১৫ রাউন্ড গণনার শেষে মমতা প্রতিদ্বন্দ্বী শুভেন্দু অধিকারীর চেয়ে এগিয়ে যান। তবে শেষ হাসি হাসেন শুভেন্দু।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার মোট আসন ২৯৪টি হলেও নির্বাচনের মধ্যে দুই প্রার্থীর মৃত্যু হওয়ায় দুটি আসনের ভোট স্থগিত হয়। ফলে সকালে ২৯২টি আসনের ভোট গণনা শুরু হয় কড়া নিরাপত্তার মধ্যেই।

গত ২৭ মার্চ পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের ভোট শুরু হয়। শেষ হয় গত বৃহস্পতিবার। আট দফায় ভোট পড়ার গড় হার ৮১ দশমিক ৬ শতাংশ।