শিরোনামঃ

» বনরক্ষী স্বামী ও তার সহযোগীদের হামলায় জখম হয়ে হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছে গৃহবধু

প্রকাশিত: ১৭. নভেম্বর. ২০২০ | মঙ্গলবার

মোংলা প্রতিনিধি।।বনরক্ষী স্বামী ও তার সহযোগীদের হামলায় মারাত্মক জখম হয়ে এখন হাসপাতালের বিছানায় কাতরাচ্ছে গৃহবধু আনোয়ারা বেগম।

আহত গৃহবধূ তার স্বামীর দীর্ঘদিনের নির্যাতনের প্রতিবাদ করে বিচারের দাবি জানালে স্বামি ও তার সহযোগীরা পরিকল্পিতভাবে এ হামলা চালিয়েছেন।

সুন্দরবনের শরণখোলা রেঞ্জ অফিসের কাছাকাছি এলাকায় সোমবার দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। পরে পুলিশ আহত গৃহবধূকে উদ্ধার করে মোংলায় তার বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়ার পর চিকিৎসার জন্য তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

ভুক্তভুগী গৃহবধূ ও তার স্বজনরা জানায়, পূর্ব সুন্দরবন বিভাগের দুবলা জেলে পল্লীতে বর্তমানে কর্মরত বনরক্ষী (বিএম) আবু হানিফ মাতুব্বরের (৫০) এর সাথে মোংলার আণ্ধারিয়া গ্রামের ওই গৃগবধূর সাথে কয়েক মাস আগে বিয়ে হয়।

বিয়ের পরে তারা শরণখোলা ও মোংলায় বাসা ভাড়া করে সংসার করলেও সম্প্রতি স্বামি হানিফ ওই গৃহবধূর উপর যৌতুক দাবিসহ নানা অজুহাতে নির্য়াতন চালাতে থাকে।

এক পর্যায়ে এ নিয়ে গুহবধূ আনোয়ারা তার স্বামীর বিরুদ্ধে সুন্দরবন বিভাগের উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ দেয়।

এ অভিযোগের বিষয়ে শুনানীর জন্য বন বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জ অফিসে সোমবার সকালে ডাকা হয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত শুনানী পিছিয়ে দেয়ায় গৃহবধূ মোংলায় ফিরে আসার পথিমধ্যে বনরক্ষী স্বামি ও তার সহযোগীরা ওই গৃহবধূর উপর হামলা ও মারপিট চালিয়ে গুরুতর জখম করে। পরে খবর পেয়ে শরণখোলা তানা পুলিশ ওই গৃহবধূ উদ্ধার করে মোংলায় ফিরে যাবার ব্যবস্থা করে।

এ ঘটনায় শরণখোলা থানায় গৃহবধূর পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত বনরক্ষী হানিফ মাতুব্বরের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার বিরুদ্ধে আনীত হামলা ও মারধরের অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪২ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
দআতাউর রহমান।।  কলারোয়ায় বাড়ির আঙিনায় বন্ধুদের সাথে খেলতে গিয়ে ঢেউটিনের…