শিরোনামঃ

» বাগেরহাটে রামপালে সাংবাদিক পরিচয়ে ইমামের কাছে চাদা দাবি।। জনতার হাতে গনধোলাই

প্রকাশিত: ২৪. এপ্রিল. ২০২১ | শনিবার

বিশেষ প্রতিনিধি।।রামপালে সাংবাদিক পরিচয়ে মসজিদের ইমামের কাছ থেকে চাঁদাদাবির সময় জনতার হাতে আটকের পর গণধোলাই। ইমাম সাহেবের অপরাধ দুজন ছাত্রকে পবিত্র কুরআন শিক্ষা দেওয়া।

বাগেরহাটের রামপাল গিলাতলা বাজার কেন্দ্রীয় মসজিদের ইমাম মোঃ হাফিজুর রহমান সাহেব এর কাছে ১০০০ টাকা চাঁদা দাবি করে সাংবাদিক পরিচয়ে ফয়সাল।

স্থানীয়রা জানান ফয়সাল এর বাড়ি মোল্লাহাট উপজেলায়। সে বাগেরহাট জেলার বিভিন্ন উপজেলায় এক এক সময় এক এক পরিচয় দিয়ে ভয়ভীতি দিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছে।

তাছাড়াও তার মাজায় তিন চার টা ভুয়া অনলাইন পোটলা এর বুম গুঁজে রাখে।আসলে সাংবদিক পরিচয় দেওয়া কে এই ফয়সাল?

তাছাড়াও এলাকাবাসী জানান বাসায় দুজন শিশুকে কুরআন শিক্ষা দিতেছিলেন ইমাম সাহেব।করোনা কারনে সারা দেশে লকডাউন চলাকালে কেন সে কোরআন শিক্ষা দিতেছেন এটাই তার ছিল ইমাম সাহেবের অপরাধ।এরপর সেই ইমামকে নানাবিধ ভয় দেখিয়ে ১০০০ টাকা দাবি করে এই কথিক সাংবাদিক ফয়সাল।

ফয়সাল নিজেকে দৈনিক বসুন্ধরা পত্রিকার প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় দেয়। ও নাম না জানা কিছু অনলাইন নিউজ পোর্টাল এর বুম দেখিয়ে বড় টিভি সাংবাদিক বলে পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজি করে আসছে ফয়সাল।

সচেতন মহলের দাবি দ্রুত এই ফায়সালকে আইনের আওতায় আনা হোক না হলে প্রকৃত সাংবাদিকদের বদনাম হবে এর কারণে এমনটাই দাবি সকলের।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৯ বার

[hupso]