শিরোনামঃ

» মক্তবে পড়তে গিয়ে ইমামের ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা এক কিশোরী

প্রকাশিত: ২৬. নভেম্বর. ২০১৯ | মঙ্গলবার

রাজশাহী জেলা প্রতিনিধি:  রাজশাহীর পুঠিয়ায় মক্তবে পড়তে গিয়ে ইমামের ধর্ষণের শিকার হয়ে এক কিশোরী (১৬) অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ইমাম ইয়াকুব আলীকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে উপজেলার সেনভাগ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

ধর্ষক ইয়াকুব আলী নরসিংদী জেলার বাসিন্দা আবুল হোসেনের ছেলে। তিনি পুঠিয়ার গাঁওপাড়া সেনভাগ জামে মসজিদের ইমাম হিসেবে কর্মরত ছিলেন এবং মসজিদ সংলগ্ন একটি কক্ষে বসবাস করতেন। তার স্ত্রী-সন্তান রাজশাহী নগরীর রাজপাড়া এলাকায় বসবাস করে।

ইয়াকুব আলী ইমামতির পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে মসজিদে এলাকার শিশুদের আরবি শিক্ষা দিতেন। ভুক্তভোগী ওই কিশোরীও তার কাছে পড়তে যেত। সেই সুবাদে কৌশলে নিজ কক্ষে নিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করেন ইমাম। এতে গত জুনে ওই কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। ওই সময় বিয়ের আশ্বাসে তার গর্ভপাত করান ইমাম।

পরে কিশোরীর পরিবার বিষয়টি জেনে যায়। তারা বিয়ের জন্য ইমামকে চাপ দিলে তিনি তাতে অস্বীকৃতি জানান। এ নিয়ে গত ২৪ নভেম্বর ইয়াকুব আলীকে প্রধান আসামি করে মামলা করেন ভুক্তভোগী কিশোরীর বাবা। মামলায় ইয়াকুব আলীর দুই সহযোগীকে আসামি করা হয়েছে।

পুঠিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রেজাউল ইসলাম জানান, সোমবার অভিযুক্ত ইয়াকুব আলীকে গ্রেফতারের পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ওই কিশোরীকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৭০ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
কিছুদিন আগেই আছড়ে পড়েছিল ঘূর্ণিঝড় বুলবুল। এবার আসছে আরও এক…