শিরোনামঃ

» মহম্মদপুরের ঘুল্লিয়ায় পাট ক্ষেত থেকে মহিলা লাশ উদ্ধার

প্রকাশিত: ২৫. এপ্রিল. ২০২১ | রবিবার

বেত্রাবতী ডেস্ক।।মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার ঘুল্লিয়া গ্রামের একটি পাটের ক্ষেত থেকে সকিনা বেগম (৩৫) নামের এক নারীর লাশ উদ্ধার করেছে মহম্মদপুর থানা পুলিশ।

আজ (২৫ এপ্রিল) রবিবার সকালে ওই নারীর লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন মাগুরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইব্রাহিম।

মৃত সখিনা ঘুল্লিয়া গ্রামের মৃত মালেক শেখের মেয়ে। ওই নারী স্বামী পরিত্যক্তা। তাঁর কোনো সন্তান নেই।

তবে স্থানীয়রা জানায় অনেক আগে সখিনার বিয়ে হয়েছিল তবে স্বামীর সংসার বেশি দিন করেনি। দীর্ঘদিন সে বাবার ভিটেয় কৃষক ভাইয়ের সঙ্গে বসবাস করে আসছিল ।

তিনি এলজিইডির গ্রামীণ সরকারি রাস্তার কর্মসূচির কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন।

জানা গেছে, ঘটনার দিন সকালে ওই এলাকার কৃষকেরা মাঠে কাজ করতে গিয়ে লাশ দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। পরে গ্রামের লোকজন তার বাড়িতে খবর দিলে লাশ শনাক্ত করেন তার পরিবার। লাল রঙের একটি কম্বলের উপর উল্টো হয়ে লাশটি পড়ে ছিল। লাল রঙের উপর সবুজ ফুলের ছাপা শাড়ির আচল গলায় প্যাচানো ছিল।

বিনোদপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান শিকদার জানান, অসহায় মেয়েটিকে রাস্তায় মাটি কাটা কাজ দিয়েছিলেন। কাজ না থাকলে সরকারি বিভিন্ন সহায়তা তাকে দেয়া হত। ঘুল্লিয়া গ্রামের হাতিগাড়া ব্রিজের পাশে মাঝ মাঠে খেতে এক নারীর লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী পুলিশে খবর দেয়।

তবে নির্ভরযোগ্য একটি সূত্র জানিয়েছে, স্থানীয়রা ভাবে ওই মহিলা রাস্তায় কাজের পাশাপাশি সুদের কারবার করে আসছিলো । সুদের টাকার দেনাকারীরা তাকে হত্যা করে ফেলে রাখতে পারে বলে ধারণা করছে।

মহম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তারক বিশ্বাস বলেন, লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাগুরা ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে হচ্ছে, তাঁকে হত্যা করে লাশ ফেলে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩১ বার

[hupso]