শিরোনামঃ

» মহিলা মেম্বরকে ধর্ষনের অভিযোগে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে থানায় মামলা

প্রকাশিত: ২৩. ফেব্রুয়ারি. ২০২০ | রবিবার

 

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলার ৩ নম্বর তাহেরহুদা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলমের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করেছেন ওই ইউপিরই এক নারী সদস্য। গত ১৯ ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এ মামলা করেন তিনি। ট্রাইব্যুনালের বিচারক চাঁদ মোহাম্মদ আবদুল আলিম আল রাজি মামলাটি এজাহার হিসেবে নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা নিতে হরিণাকুণ্ডু থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

মামলায় বাদী জানিয়েছেন, গত ১২ ফেব্রুয়ারি তিনি ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে কাজ করছিলেন। দুপুরের পর একে একে সব ইউপি সদস্য ও অন্যরা চলে গেলে চেয়ারম্যান তাকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে অনৈতিক প্রস্তাব দেন। এতে তিনি রাজি না হওয়ায় তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় তিনি ভবানীপুর গ্রামের আল আমিন, মিন্টু মোল্লা, শরিফুলসহ ছয়জনকে সাক্ষী হিসেবে উল্লেখ করেছেন। মামলার সাক্ষী আল আমিন বলেন, ‘ঘটনাটি সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি এ ধরনের কোন ঘটনা জানি না।’ একই কথা বলেন সাক্ষী মিন্টু মোল্লা, শরিফুলসহ অন্যরা।

তাহেরহুদা ইউপি সদস্য ওহিদুল ইসলাম, আলমগীর হোসেন ও নুর আলী বলেন, ‘ওই নারী সদস্য আমাদের সাতজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় আমরা আদালত থেকে নির্দোষ প্রমাণিত হয়েছি। পরে তার বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করি। এ ঘটনায় তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েছেন।’

এ বিষয়ে ইউপি চেয়ারম্যান মঞ্জুরুল আলমের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া গেছে। তিনি চিকিৎসার জন্য ভারতে গেছেন বলে জানান ইউপি সদস্যরা।

জানা গেছে, গত ১৩ ফেব্রুয়ারি ওই নারী ইউপি সদস্য থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ভবানীপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সাজ্জাদ হোসেন বলেন, তদন্ত করে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়নি।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জামিনুর রশিদ বলেন, ১২ ফেব্রুয়ারি দুপুর ২টা ২৫ মিনিটে ওই নারী সদস্য মারামারির কথা উল্লেখ করে হাসপাতালে ভর্তি হন। পরদিন সকালে ধর্ষণের কথা জানালে তাকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। হরিণাকুণ্ডু থানার ওসি আসাদুজ্জামান বলেন, এখনও আদালতের আদেশ হাতে পাইনি। পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩০৪ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
  অ্যাসিড হামলায় দৃষ্টি হারিয়েছেন কমপক্ষে চারজন। খুরশিদ নামে এক…