শিরোনামঃ

» মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালানে ৬টি কোচ মোংলা বন্দর থেকে খালাস শুরু

প্রকাশিত: ০৯. মে. ২০২১ | রবিবার

মোংলা প্রতিনিধি।।মোংলা বন্দরে খালাস শুরু হয়েছে জাপানের কোবে বন্দর থেকে আসা মেট্রোরেলের দ্বিতীয় চালান। ৪৮টি প্যাকেজে করে আসা এই চালানেও মেট্রো রেলের কারের ছয়টি বগি রয়েছে।

রবিবার (৯ মে) দুপুর একটায় বিদেশি পতকাবাহী ‘এম ভি ওশান গ্রেস’ জাহাজ বন্দরের ৮নং জেটিতে নোঙ্গর করার পরই এই কোচের খালাস পক্রিয়া শুরু হয়। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, কাস্টম প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার দুই থেকে তিন দিন পর নদী পথে বিশেষ পদ্ধতির কার্গোতে করে এসব পণ্য যাবে ঢাকা শহরের উত্তরার দিয়াবাড়িতে।

এর আগে চলতি বছরের গত ৩১ মার্চ কাঙ্খিত মেট্রোরেলের প্রথম চালানের ৬টি কোচ ঢাকায় পৌঁছানোয় হয়। সেটিও আমদানি হয় মোংলা বন্দর দিয়ে।

রবিবার দুপুরে মোংলা বন্দরে দ্বিতীয় কোচের চালান পৌঁছানোর পর বন্দরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে সেটির খালাস পক্রিয়া শুরু করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স খুলনা ট্রেডার্স নামে একটি শ্রমিক সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান।

বন্দরের চেয়ারম্যান আরও জানান, ২৬৭ মেট্রিক টন ওজনের এই পণ্য খালাস শেষ করতে ২৪ ঘন্টা লাগলেও মূল গন্তব্য উত্তরার দিয়াবাড়িতে নদী পথে যাবে তিন থেকে চারদিন পর।

এছাড়া ২০২২ সালের মধ্যে ২৪ টি বিদেশী বানিজ্যিক জাহাজে করে এ সমুদ্র বন্দর দিয়ে মেট্রোরেলের আরও ১৪৪ টি বগি খালাস হবে বলেও জানান তিনি।

বিদেশি ওই জাহাজটির স্থানীয় শিপিং এজেন্ট এনশিয়েন্ট স্টিমশিপ কোম্পানি লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার ওহিদুজ্জামান বলেন, দেশে আমদানি হওয়া রেলওয়ের এ কারগুলো তৈরি করেছে জাপানের কাওয়াসাকি-মিতসুবিশি কনসোর্টিয়াম কোম্পানি লিমিটেড।

আর বাংলাদেশে তা আমদানি করছে ঢাকা মাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড বা ডিএমটিসিএল। তবে মোংলা বন্দর উন্নয়নের ধারাবাহিকতার এটি একটি মাইল ফলক। এক সময়ের মৃত্য বন্দর এখন লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিনত হয়েছে। বেড়েছে দেশী-বিদেশী বানিজ্যিক জাহাজ আগামন-নির্গমন।

শ্রমিকদের হয়েছে কর্মসংস্থান এবং এখানকার ব্যাবসায়ীরা পেয়েছেন একটি সুন্দর ও পরিবেশ বান্ধব সমুদ্র বন্দর।

পদ্মাসেতু, ফয়লা বিমান বন্দর আর রেল লাইন ও তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্র চালু হলে এ বন্দরটি হবে বিশ্ব বানিজ্যিক বাজারে কাছে একটি ব্যাস্ততম সমুদ্র বন্দর বলেও জানায় বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এ্যাডমিরাল মোহাম্মদ মুসা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮৪ বার

[hupso]