শিরোনামঃ

» মোংলায় স্কুল ছাত্রীকে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য ও ধর্ষণের ঘটনায় মামলায় আটক ৪

প্রকাশিত: ১২. জানুয়ারি. ২০২১ | মঙ্গলবার

মোংলা প্রতিনিধি।।মোংলার পৌর শহরের সিগনাল টাওয়ার এলাকার এক স্কুল ছাত্রীকে দীর্ঘ প্রায় ৬ মাস ধরে আটকে রেখে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করাসহ ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় ধর্ষণের শিকার ওই কিশোরী মঙ্গলবার থানায় মামলা দায়েরের পর ধর্ষকসহ পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অপরাধে মহিলাসহ ৪ জনকে আটক করেছে মোংলা থানা পুলিশ।

ধর্ষিতা কিশোরী মোংলার সিগনাল টাওয়ার এলাকা মোহাম্মদ ইসমাইল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণীর ছাত্রী এবং এই এলাকার খলিলুর রহমানের মেয়ে।

মোংলা থানার ওসি (তদন্ত) তুহিন মন্ডল জানান, মোংলা পৌর শহরের সিগনাল টাওয়ার এলাকার খলিলুর রহমান’র স্কুল পড়–য়া ছাত্রী কিশোরী কন্যাকে নিকট আত্মীয় শিউলি বেগম ও শারমিন বেগম করোনাকালীন সময় স্কুল বন্ধ থাকার সুবাধে বাড়ীতে বেড়ানোর কথা বলে পার্শবতী শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর এলাকায় নিয়ে যায়। কিছু দিন পর বাড়ীতে আসলেও এরকম প্রাই তাকে বেড়াতে নিয়ে যেত মামলার আসামীরা। সেখানে প্রায় ৬ মাস যাবত ওই কিশোরীকে মাদক সেবন করিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করাতো তারা।

সর্বশেষ ওই কিশোরীকে আত্নীয় দেলোয়ার পাটোয়ারী (৩০) তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে বলে কিশোরী অভিযোগ করে।

এছাড়া মামলার আসামীরা বাড়ীতে রেখে এবং বিভিন্ন বাড়ীতে নিয়েও তাকে পতিতাবৃত্তি করাতো বলে কিশোরী থানায় দেয়া মামলায় উল্লেখ করে।

খবর পেয়ে গত ১১ জানুয়ারী কিশোরীর মা-বাবা তাকে সেখান থেকে উদ্ধার করে মোংলায় নিজ বাড়ীতে নিয়ে আসে। কিশোরীর পরিবারের সদস্যরা উদ্ধার করে আনার পর ১২ জানুয়ারী মঙ্গলবার বিকালে থানায় হাজির হয়ে ওই কিশোরী নিজে বাদী হয়ে, শারমিন বেগম (৩০), শিউলি বেগম (৪৫), পারভিন বেগম (৩৫), শিল্পী বেগম (৩৬), আলী হোসেন (৩৮), দেলোয়ার পাটোয়ারী (৩০) ও তায়েবা বেগম (৩০)কে আসামী করে মোংলা থানায় ধর্ষন ও মাদক সেবন করিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করানো অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছে। মামলা নং-০৬।

এ ঘটনায় কিশোরীকে ধর্ষণের দায়ে দেলোয়ার পাটায়ারীকে এবং জোর করে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করানোর দায় আত্মীয় শারমিন, শিউলি ও শিল্পীকে আটক করেছে পুলিশ।

মামলার অপর আসামী ধর্ষক আলী হোসেন ও তায়েবা বেগম পলাতক রয়েছে।

আটককৃতদের বাড়ী মোংলার কাইনমারী ও সিগনাল টাওয়ার এলাকায়।

আটককৃতদেরকে বুধবার সকালে বাগেরহাট আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে বলে জানিয়েছে থানা পুলিশ।

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ  ইকবাল বাহার চৌধুরী জানান, পৌর শহরের সিগনাল টাওয়ার এলাকার এক স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষন ও মাদক সেবন করিয়ে বিভিন্ন প্রলোভন ও ভয়ভীতি দেখিয়ে পতিতাবৃত্তিতে বাধ্য করার অপরাধে থানায় মামলা হয়েছে।

এব্যাপারে ৪জনকে আটক করা হয়েছে এবং বাকি আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে বলেও জানায় থানার এ কর্মকর্তা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৩ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
বেনাপোল প্রতিনিধি।।বেনাপোল পোর্ট থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় পৃথক অভিযানে ১শ পিস…