শিরোনামঃ

» যশোরে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করছে করোনা ভাইরাস, মৃত্যু আরও ১১ ,আক্রান্ত ৩৫২,

প্রকাশিত: ০৮. জুলাই. ২০২১ | বৃহস্পতিবার

বিশেষ প্রতিনিধি।। যশোরে ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করছে করোনা ভাইরাস। আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলেছে প্রতিনিয়ত। শহর থেকে শুরু করে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে চলছে করোনার থাবা।

গত ২৪ ঘণ্টায় যশোর মেডিকেল কলেজ হাস পাতালে করোনা আক্রান্ত ও উপসর্গ নিয়ে আরও ১১ জন মারা গেছেন।

এর মধ্যে করোনা আক্রান্ত ছিলেন পাঁচ জন। এছাড়া উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন আরও ছয় জন। আক্রান্ত হয়েছেন তিনশ’ ৫২ জন।

হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার আরিফ আহমেদ জানান, বর্তমান রেডজোনো দেড়শ’ শয্যার বিপরীতে একশ’ ৬১ জন ও ইয়োলোজোনো ৩১ শয্যার বিপরীতে ৭৪ জন রোগী ভর্তি আছেন। নতুন করে মৃত্যু হয়েছে আরও ১১ জনের।

এদের মধ্যে পাঁচ জন করোনায় ও ছয় জন করোনা উপসর্গ নিয়ে। হঠাৎ রোগীর চাপ বেড়ে যাওয়ায় গত এক সপ্তাহে বিপাকে পড়তে হয়েছে রোগীর শয্যা নিয়ে। তবে, রেড ও ইয়োলোজোনো শয্যা বাড়ানোর ফলে পরিস্থিতি এখন কিছুটা স্বাভাবিক রয়েছে।

সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহীন জানান, গত ২৪ ঘন্টায় যশোরে আটশ’ ৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় তিনশ’ ৫২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। সদর উপজেলায় আক্রান্ত হয়েছে দুইশ’ জন।

এছাড়া কেশবপুরে ১০, ঝিকরগাছায় ৪৫, অভয়ন গরে ২২, মণিরামপুরে ২৩, বাঘারপাড়ায় চার, শার্শায় ১০ ও চৌগাছায় ৩৮ জন। এ পর্যন্ত জেলায় আক্রান্ত ১৪ হাজার পাঁচশ’ ২২ জন। সুস্থ হয়েছেন নয় হাজার ৯৪ জন। মৃত্যু হয়েছে একশ’ ৯২ জনের।

হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডাক্তার আকতারুজ্জামান বলেন, শয্যা বা জায়গার অভাবে রোগীকে ঢাকা বা খুলনা রেফার কোনভাবেই সমাধান না। যে কোন পরিস্থিতিতে করোনা বা উপসর্গের রোগীকে হাসপাতালে চিকিৎসাসেবা প্রদানের চেষ্টা করা হবে।

তবে এই অবস্থা চলতে থাকলে স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করা কঠিন হয়ে পড়বে। হাসপাতালেও স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মানুষের অসচেতনতায় জেলার করোনা পরিস্থিতি ক্রমশ অবনতির দিকে যাচ্ছে। সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়েছে শহর থেকে গ্রামে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৯ বার

[hupso]