একটি বাসায় বন্দি ৩ যৌনকর্মীকে মুক্তিও দিয়ে ওই মন্তব্য করেছে হাইকোর্ট। বিচারপতি জানান, কোনো প্রাপ্তবয়স্ক নারীকে তার সম্মতি ছাড়া আটকে রাখা যায় না।

হাইকোর্ট আরও বলেছে, যৌন ব্যবসার জন্য কাউকে নির্যাতন করা হলে বা প্রকাশ্য স্থানে যৌন ব্যবসা সংক্রান্ত প্রলোভন দেখানো হলে তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

মহারাষ্ট্রের মালাড এলাকায় একটি গেস্ট হাউসে অসামাজিক কর্মকাণ্ডের খবর পেয়ে অভিযান চালিয়ে তিন নারী ও নিজ়ামুদ্দিন খান নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

আদালতে শুনানির সময় প্রকাশ পায়, ইটক ওই তিন নারী ‘বেদে’ সম্প্রদায়ের। ওই সম্প্রদায়ে নারীদের নির্দিষ্ট বয়সের পরে যৌন পেশায় যোগ দিতে পাঠানোর রেওয়াজ আছে।

এ ক্ষেত্রে বাবা-মাকেই মেয়েকে যৌন পেশায় যোগ দেয়ার অনুমতি দিচ্ছেন। তাই এ ক্ষেত্রে মায়ের হাতে মেয়ের দায়িত্ব দেয়া নিরাপদ নয়। ওই তিন নারীকে এক বছর মহারাষ্ট্রের একটি হোমে আটক রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।