শিরোনামঃ

» লোভনীয় অফারের আড়ালে এমএলএম ব্যবসা, চুক্তি বাতিল করেছেন মাশরাফি

প্রকাশিত: ০২. জুন. ২০২১ | বুধবার

বেত্রাবতী ডেস্ক।।গত এপ্রিলে ‘এসপিসি গ্রুপ’ নামক এক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলেন বাংলাদেশের সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।

কিন্তু চুক্তির দুই মাস যেতে না যেতেই তা বাতিলের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

শুরুতে এই প্রতিষ্ঠানেরই শুভেচ্ছা দূত হয়েছিলেন মাশরাফি। চুক্তি অনুযায়ী কোম্পানিটি তাদের পণ্যের প্রচারে দেশের সেরা ক্রিকেট আইকনের ছবি ও ধারণকৃত ভিডিও ব্যবহার করতে পারতো।

মাশরাফির ছবি ও ভিডিও ব্যবহারের বিনিময়ে নড়াইলে ১০০টি উন্নতমানের সিসিটিভি স্থাপনসহ সামাজিক উন্নয়নে কাজ করার কথা প্রতিষ্ঠানটির।

কিন্তু পরে মাশরাফি জানতে পারেন, কোম্পানিটির ব্যবসার ধরণ সম্পর্কে তাকে ভুল ধারনা দেওয়া হয়েছিল। এই কারণেই চুক্তি বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন সাবেক অধিনায়ক।

মঙ্গলবার রাতে নিজের ফেসবুক পেজে চুক্তি বাতিলের বিষয়ে মাশরাফি ব্যাখ্যা দিয়েছেন, ‘গত এপ্রিলে আমি ‘SPC GROUP’ নামের একটি প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সম্পৃক্ত হয়েছিলাম।

তাদের সঙ্গে আমার চুক্তি ছিল, ‘শুভেচ্ছা দূত’ হিসেবে তারা তাদের প্রতিষ্ঠানের প্রচারে আমার ছবি ও ধারণকৃত ভিডিও ব্যবহার করতে পারবে।

বিনিময়ে তারা নড়াইলে ১০০টি উন্নতমানের সিসিটিভি স্থাপনসহ সামাজিক উন্নয়নের কাজ করবে।

কিন্তু সম্প্রতি আমি জানতে পেরেছি, তাদের প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে যে ধারনা আমাকে দেওয়া হয়েছিল, তাদের ব্যবসার ধরন তা নয়।’

মাশরাফি আরও বলেছেন, ‘দুই বছরের চুক্তি থাকলেও দুই মাসের মধ্যেই তাদের সম্পর্কে জানার পর আমি তাদের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ইতোমধ্যেই আমি তাদেরকে উকিল নোটিশ পাঠিয়েছি। আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তি শেষ করার আইনী প্রক্রিয়া এগিয়ে নিচ্ছি। আমি সবাইকে অনুরোধ করবো, আমার নাম বা ছবি দেখে বিভ্রান্ত হয়ে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে না জড়াতে।’

এসপিসি গ্রুপ ডিজিটাল উন্নয়নকে একরকম হাতিয়ার বানিয়ে সাধারণ মানুষদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার ফাঁদ পেতেছিল।

মাত্র ২০ সেকেন্ড সময় ব্যয় করে বিজ্ঞাপন দেখলে আয় হবে ১০ টাকা। এর জন্য দরকার প্লে-স্টোর থেকে একটি অ্যাপ ডাউনলোড আর এসপিসি গ্রুপের কোম্পানিতে আইডি খুলতে দিতে হবে এক হাজার ২০০ টাকা!

জানা গেছে, এমন লোভনীয় অফারের আড়ালে রয়েছে এমএলএম ব্যবসা। বিষয়টি নিয়ে সমালোচনা তুঙ্গে উঠার আগেই মাশরাফি চুক্তি বাতিলের ঘোষণা দিলেন।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৯৬ বার

[hupso]