শিরোনামঃ

» শার্শার বাগআঁচড়ায় দুই সপ্তাহে করোনা সংক্রমণে  ১১ জনের মৃত্যু,আতংকিত এলাকাবাসী

প্রকাশিত: ২৪. জুন. ২০২১ | বৃহস্পতিবার

আসাদুজ্জামান নয়ন।। শার্শার বাগআঁচড়ায় করোনা ভাইরাস দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। গত দুই সপ্তাহে করোনা সংক্রমণ হয়ে ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

জ্বর সর্দি কাশিতে আক্রন্ত ব্যক্তিরা করোনা টেস্টে অনীহা প্রকাশ করছেন এতে করোনা সংক্রমণ বেশি হচ্ছে। যার ফলে বাগআঁচড়ার বিভিন্ন গ্রামে করোনা সংক্রমণ রোগী ছড়িয়ে পড়ছে।

স্থানীয় প্রতিনিধিরা জানান, করোনা সংক্রমন নিয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন, বাগআঁচড়ার সাতমাইলের দুখে বিশ্বাসের মেয়ে হাবি(৫০) টেংরা মৃত ছাত্তার মোল্লার ছেলে আব্দর রাজ্জাক(৪৫)আমতলার মোহম্মাদ আলীর ছেলে ইসলাম(৫৫) বসতপুর জয়নাল আবেদিনের ছেলে আব্দুর রব(৬৫) বসতপুর সুরোজ মিয়ার ছেলে আরশাদ আলী(৩৮) বসতপুর জব্বার মোল্লার ছেলে আক্কাজ মোল্লা(১১২) সোনাতন কাটির মৃত ফকির চঁাদের ছেলে আবুল কালাম (৬২) রসতপুর মৃত আমির আলীর ছেলে মিজানুর রহমান মিরজা(৬০) বসতপুর ইয়াদ আলীর মিস্ত্রীর ছেলে আবুল হোসেন মিস্ত্রী(৬০) বসতপুর মৃত সুরোজ আলীর ছেলে আব্দুল হক(৫২) বসতপুর আব্দুর ছাত্তার সাহেবের স্ত্রী তহমেনা খাতুন(৬০)।

পল্লী চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, গ্রামের অধিকাংশ মানুষের শরীরের জ্বর, সর্দি, মাথা ব্যাথা, কাশি নিয়ে মানুষ চলাচল করছে। যে পরিবারে জ্বর দেখা দিচ্ছে, সেই পরিবারের সবাই এভাবে অসুস্থ হচ্ছে।

বর্তমানে করোনা সংক্রমণ রোগীরা হোম কোয়ারেন্টিনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলেও জানান। তবে বাগআঁচড়ায় দিনদিন করোনা সংক্রমণ সংখ্যা বৃদ্ধি পেলেও স্বাস্থ্যবিধি মানার ব্যাপারে মানুষের মাঝে তেমন কোনো উৎসাহ দেখা যাচ্ছে না।

করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি পাওয়ায় উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) রাসনা শারমীন মিথি নেতৃত্বে শার্শার বিভিন্ন এলাকায় জনসচেতনতামূলক সাইনবোর্ড লাগিয়ে হ্যান্ড মাইকিং করা হয়েছে এবং পুলিশের পক্ষ থেকেও মাস্ক বিতরণ ও মাইকিং করা হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলার বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ফরিদ ভূইয়ার নেতৃত্বে বাগআঁচড়া বাজারসহ আশপাশের কয়েকটি বাজারে দুপুর ১২টার পর থেকে লকডাউনে কঠোর অবস্থনে বাগআঁচড়া পুলিশ।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৩৮ বার

[hupso]