শিরোনামঃ

» সন্ত্রাস-চাঁদাবাজ ও মাদক কারবারীদের আওয়ামী লীগে স্থান হবে না–মোংলায় খুলনা সিটি মেয়র

প্রকাশিত: ১৮. সেপ্টেম্বর. ২০২০ | শুক্রবার

বিশেষ প্রতিনিধি।।দেশে করোনাকালীন সময় যে সকল কর্মহীন মানুষ ঘরবন্ধী ছিলেন, তাদেরকে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ব্যাপক সাহায্য সহযোগীতা আমরা করেছি। উপকুলীয় অঞ্চলে সুন্দরবনের নদী-খালে মাছধরা বন্ধ ছিল, যারা জেলে ছিলেন, সে সময়ও আপনারা সরকারের সহযোগীতা পেয়েছেন।

আগামী ১৫ অক্টোবর মাসে ইলিশ ধরা বন্ধ থাকবে, সে সময়ও সহায়তা পাবেন। মারন ঘাতক করোনা ভাইরাসের কোন ঔষধ এখনও আবিস্কার হয়নী, শুধু মাত্র সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখা আর নিজে ও পরিবার কে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রেখে সচেতন ভাবে চলাচল করলেই এ রোগের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব।

শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় মোংলা বন্দর শ্রমিক কর্মচারী সংঘের চত্বরে শ্রমিক ও গরীব অসহায় মানুষদের মাঝে উপমন্ত্রী’র পক্ষ থেকে ত্রান বিতারন অনুষ্ঠানে খুলনা সিটি মেয়র তালুকদার আঃ খালেক এ কথা বলেন।

পরিবেশ বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রনালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার ও খুলনা সিটি মেয়র’র নিজেস্ব তহবিল থেকে ৭২০ জন বন্দরে কর্মরত শ্রমিক কর্মচারী ও পৌর শহরের অসহায় মানুষদের মাঝে এ কাদ্য সহায়তা প্রদান করা হয়।

খাদ্য সামগ্রী বিতরনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় কেসিসি মেয়র আব্দুল খালেক আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সীমিতভাবে সাংগঠনিক কার্যক্রম শুর“ করা হয়েছে। আমরাও আজ থেকে মোংলায় সকল নেতা, কর্মীদের নিয়ে সীমিত আকারে বর্ধিত সভা করে সাংগঠনিক কর্মকান্ড কিভাবে এগিয়ে নেয়া যায়, শুক্রবারের সভায় সেই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। মোংলা উপজেলা ও পৌরসভায় এর আগেও আওয়ামীলীগের কমিটি করা হয়েছে।

এছাড়া কিছু কমিটি বাকি রয়েছে, কিন্ত সামনে যে কমিটি গঠন করা হবে সেখানে সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও মাদকের সাথে জড়িতদের কোন স্থান দেয়া হবেনা বলে নেতৃবৃন্দদের নির্দেশ করেন তিনি।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, সহকারী কমিশনার (ভুমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইকবাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ’র ডেপুটি কমান্ডার ও পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আব্দুর রহমান, মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ ইকবাল বাহার চৌধুরী, ছয় ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানগন, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ স্থানীয় আওয়ামীলীগের সকল সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

ত্রান বিতারন শেষে সরকারের নির্দেশনা মোতাবেক দীর্ঘ প্রায় ৬ মাস পর মোংলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে এক বর্ধিত সভায় যোগদেন মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি সিটি মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আঃ খালেক।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬১ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
বেত্রাবতী ডেস্ক।।অসামাজিক কার্যকলাপ করতে গিয়ে গ্রামবাসীর কাছে ধরা খেয়ে গণধোলাইয়ের…