শিরোনামঃ

» সাতক্ষীরায় একযোগে ২৬ চিকিৎসককে বদলী, করোনা চিকিৎসা ও পিসিআর ল্যাব বন্ধ হওয়ার আশংকা

প্রকাশিত: ০৬. জুলাই. ২০২১ | মঙ্গলবার

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি।। সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের ২৬ জন চিকিৎসককে একযোগে বদলী করা হয়েছে। এদের ১০ জনকে পদায়ন করা হয়েছে যশোর জেনারেল হাসপাতালে এবং ১৬ জনকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে।

আগামী ৭ জুলাই এর মধ্যে পদায়নকৃতদের নতুন কর্মস্থলে যোগদান করতে বলা হয়েছে। অন্যথায় পরদিন ৮ জুলাই পূর্বাহ্নে বর্তমান কর্মস্থল হতে তাৎক্ষণিক অবমুক্ত হিসেবে গন্য হবে।

চিকিৎসকগণ করোনা ইউনিটে দায়িত্ব পালন করবেন। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব জাকিয়া পারভীন সোমবার এক সরকারী প্রজ্ঞাপনে স্মাক্ষর করে এ আদেশ জারী করেন।

সরকারী প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ আদেশ বলবৎ থাকবে।

যশোরে জেনারেল হাসপাতালে বদলীকৃত চিকিৎসকরা হলেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের ডা. মো. শরিফুজ্জামান, ডা. মো. আল মামুন হোসেন, ডা. প্রবীর কুমার দাশ, ডা. মো. মনিরুজ্জামান, ডা. মো. মোজাম্মেল হক, ডা. মো. শরিফুল ইসলাম, ডা. মো. সাইফুল ইসলাম, ডা. হোসনে আরা হোসেন, ডা. মো. সাইফুল্লাহ ও ডা. জিএম ফারুকুজ্জামান। এছাড়া সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ থেকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে বদলীকৃত ১৬ চিকিৎসক হলেন, ডা. শেখ আবু সাঈদ, ডা. ফারহানা হোসেন, ডা. মোছা. খসরুবা পারভীন, ডা. সুতপা চ্যাটার্জি, ডা. মো. শামছুর রহমান, ডা. মো. ইনামুল হাফিজ, ডা. মো. জাহিদুল ইসলাম, ডা. মো. ফকরুল আলম, ডা. নাসরিন সুলতানা, ডা. মো. নাছিরউদ্দিন গাজী, ডা. শেখ নাজমুস সাকিব, ডা. ফাহমিদা জামান, ডা. মেহনাজ নাজরীন, ডা. উপমা গুহ রায়, ডা. মো. আনিসুর রহমান ও ডা. শরিফা জামান।

বাংলাদেশ মেডিক্যাল এসোসিয়েশন সাতক্ষীরা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. মনোয়ার হোসেন বলেন, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ থেকে করোনা চিকিৎসার জন্য যে সমস্ত চিকিৎসককে যশোর জেনারেল হাসপাতালে বা সদর হাসপাতালে বদলী করা হয়েছে তাদেরকে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে চিকিৎসা নিশ্চিত করার জন্য নির্দেশ দিতে পারতো। সেটা সাতক্ষীরার জন্য ভালো হতো।

সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. রুহুল কুদ্দুস জানান, সাতক্ষীরায় করোনার এই সংকটময় মূহুর্তে এত সংখ্যক চিকিৎসককে একযোগে বদলী করায় সাতক্ষীরা মেডিক্যালের চিকিৎসা ব্যবস্থা ভেঙে পড়বে।
আইসিইউ বন্ধ হয়ে যাবে। পিসিআর টেস্ট এর দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসকও বদলী করা হয়েছে। এজন্য পিসিআর ল্যাবও বন্ধ হয়ে যাবে। ২৬ জন চিকিৎসক কে এখান থেকে বদলী করা হলেও তার বিপরীতে এখনও পর্যন্ত কাউকে পদায়ন করা হয়নি।
সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপতালের তত্বাবধায়ক ডা. কুদরত-ই-খোদা জানান, যাদেরকে বদলী করা হয়েছে তারা মেডিকেল কলেজের পাশাপাশি হাসপাতালেও দায়িত্বপালন করেন।
তাদের দায়িত্ব পালনের রোস্টারসহ মন্ত্রনালয়ে পাঠানো হয়েছে। আশা করি দ্রুত এ বদলীর আদেশ বাতিল হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮১ বার

[hupso]