শিরোনামঃ

» সাতক্ষীরায় সাংবাদিক ইয়ারবের গাছের পাঠশালা পরিদর্শনে এন এস আই এর কর্মকর্তারা

প্রকাশিত: ০৯. নভেম্বর. ২০২০ | সোমবার

আতাউর রহমান।।গাছের পাঠশালা শুনতে অবাক লাগলেও বৃক্ষ কেন্দ্রিক ঠিক এমনই একটি পাঠশালা গড়ে উঠেছে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার তুজলপুরে।

যা সর্বস্তরের মানুষের মাঝে জ্ঞানের আলো ছড়াচ্ছে অকৃপণভাবে।

ব্যক্তি উদ্যোগে গড়ে ওঠা এই পাঠশালা (৮ নভেন্বর)রোববার বিকালে পরিদর্শন করেন সাতক্ষীরা এন এস আই এর উপ-পরিচালক জাকির হোসেন সহ অফিসের কর্মকর্তা বৃন্দ।

এসসয় তিনি গাছের পাঠশালায় বিভিন্ন প্রজাতির গাছের সাথে পরিচিত হন সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনের মাধ্যমে।

জানা যায়, সাংবাদিক ইয়ারবের গাছের পাঠশালতে মনিরাজ, জটডুমুর, রক্তচন্দন, লালআতা, ডেগোফল, কাজুবাদাম, কনকচাঁপা, কালাপাহাড়, লালসাগর, মৌসন্দেশ কলা, কালিবগ কলা, বট, বাবলা, শিব জটা, লাল সেজে, করবী, লালজবা, টগর, কাঞ্চন, কামিনী, চাঁপা ফুল, লবঙ্গ, এলাচ, ডালচিনি, চুইঝাল, জাফরং, পেপুল, কাটানটে, আমরুল, তেলাকচু, ডুমুর, আতাড়ি পাতাড়ি, লতামুক্তঝুরি, শম্ভুলতা, কৃষ্ণতুলসি, দুধলতা, শিয়াল কাটা, অনন্ত মূল, পাপড়া, শিমুল, জয়তুন, উলটকম্বল, তরুপ চন্দাল, গদপান, সাদা ধুতরা, জষ্ঠিমধু, ডায়াবেটিস গাছসহ ২০৬ প্রজাতির ঔষধি, ৮৩ প্রজাতির ফলজ, ৪৪ প্রজাতির আম, ১৭ প্রজাতির কলা, ৩৩ প্রজাতির তরকারি ও অচাষকৃত সবজি, ২৩ প্রজাতির মসলা জাতীয় উদ্ভিদ, ২৪ প্রজাতির ফুল, ২৩ প্রজাতির বনজ ও সুন্দরবনের ৯ প্রজাতির বৃক্ষের সমাহার রয়েছে।

আর এই পাঠশালাই এখন বাংলাদেশ লোক প্রশাসন প্রশিক্ষণকেন্দ্র, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর, স্থানীয় প্রশাসন, স্কুল-কলেজ-মাদরাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের এক সুতোয় দাড় করাতে সক্ষম হয়েছে।

স্থানীয় তুজলপুর কৃষক ক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক ইয়ারব হোসেন ১৮ কাঠা জমি লিজ নিয়ে গড়ে তুলেছেন গাছের পাঠশালা নামক এই ব্যতিক্রমধর্মী শিক্ষাকেন্দ্র। যা সমগ্র জেলায় ইয়ারবের গাছের পাঠশালা নামে পরিচিতি পেয়েছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৩৬ বার

[hupso]