শিরোনামঃ

» ১০০ বছর পর বিদ্যাসাগরের সিন্দুক ভেঙ্গে যা পাওয়া গেল

প্রকাশিত: ৩০. নভেম্বর. ২০১৯ | শনিবার

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর শতবর্ষেরও আগে ভারতের সংস্কৃত কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন।

সেসময় তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে দুইটি সিন্দুক গচ্ছিত রেখে গিয়েছিলেন। পরবর্তী একশ বছরেও খোলা হয় নি সেই সিন্দুক দুটো। অবশেষে শুক্রবার (২৯ নভেম্বর) সংবাদকর্মীদের উপস্থিতিতে দুইটি সিন্দুকের মধ্যে একটির তালা ভাঙা হয়।

সিন্দুকে ১৯১৯ সালের গঙ্গামণি দেবী সিলভার মেডেল, ড. এন মুখার্জী মেডেল, ১৯৮২ সালের চেক বই, সংস্কৃত কলেজের পুরনো কাগজপত্র, ৭টি চিঠির খাম, তিনটি মেডেল, ১৯৫৬ সালের মুক্তকেশী দেবী ফাউন্ডেশনের কাগজপত্র পাওয়া গেছে।সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের প্রধান মণিশঙ্কর মণ্ডল বলেন, ‘দুটি সিন্দুক পাওয়া গেছে।

একটা খোলা হয়েছে। সেখান থেকে বেশ কিছু নথি পাওয়া গিয়েছে। বিদ্যাসাগারের আমলের কাগজপত্র পাওয়া গিয়েছে। ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ ছিলেন।’

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১৪৬ বার

[hupso]
সর্বশেষ খবর
ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়া পৌরসভার মানুষ দিনের পর দিন…