শিরোনামঃ

» আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস পালিত

প্রকাশিত: ১৬. জুলাই. ২০২১ | শুক্রবার

বেত্রাবতী ডেস্ক।।আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা’র কারাবন্দি দিবস দোয়া ও মিলাদ মাহফিল, আলোচনাসভা এবং অসহায়দের মাঝে বস্ত্র ও খাদ্য বিতরণের মধ্য দিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালিত হয়েছে।
শুক্রবার জনসমাগম এড়িয়ে আওয়ামী লীগ ও দলের অঙ্গ-সহযোগী এবং বিভিন্ন সংগঠন দিবসটি পালন করে।

ঢাকা দক্ষিণ আওয়ামী লীগ দিবসটি উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দ্বিতীয় তলায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত আলোচনা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসাবে তার সরকারি বাসভবন থেকে সভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয় চৌধুরী, ড. আব্দুর রাজ্জাক ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম ও মহানগর দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

এদিকে দিবসটি উপলক্ষে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগ ভাটারা থানার সোলমাইদ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে দুস্থদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন।

মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উত্তর আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এ কে এম রহমতউল্লাহ (এম.পি), সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি, সংসদ সদস্য হাবীব হাসান বক্তব্য রাখেন।

এদিকে সকাল ১১ টায় আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস উপলক্ষে ১৯ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ সংগঠনের কার্যালয়ে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে।

সভাপতিত্ব করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ। উপস্থিত ছিলেন সাধারণ সম্পাদক একেএম আফজালুর রহমান বাবু। এতে শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু কামনা করে দোয়া মোনাজাত করা হয়।

আওয়ামী যুবলীগ বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে বাদ আসর শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্থতা কামনা করে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে। এছাড়াও সারাদেশে যুবলীগের উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়াও শেখ হাসিনার কারাবন্দি দিবস উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভার আয়োজন করে। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের কার্যকরী সভাপতি শিল্পী রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে আলোচনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তভ্য রাখেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

এছাড়াও আলোচনায় অংশ নেন পানিসম্পদ উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম, সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

২০০৭ সালের ১৬ জুলাই ভোরে আওয়ামী লীগ সভাপতির বাসভবন সুধাসদন থেকে আটক করা হয় শেখ হাসিনাকে।

পরে কয়েকটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে সংসদ ভবন এলাকায় স্থাপিত বিশেষ কারাগারে বন্দি রাখা হয় তাকে। এর প্রতিবাদে ফেটে পড়েন দলটির সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা। ধীরে ধীরে তা তীব্র হয়।

জাতীয় ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে এক পর্যায়ে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য আট সপ্তাহের জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়।

মুক্তির পরদিনই তিনি চিকিৎসার উদ্দেশে যুক্তরাষ্ট্রে যান। চিকিৎসা শেষে ২০০৮ সালের ৬ নভেম্বর দেশে ফেরেন শেখ হাসিনা। এর পর স্থায়ী জামিন দেওয়া হয় তাকে।

পরে ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের জাতীয় নির্বাচনে জয়ের মধ্য দিয়ে ২০০৯ সালের ৬ জানুয়ারি আওয়ামী লীগসহ মহাজোট সরকার গঠিত হয়। দ্বিতীয় বারের মতো প্রধানমন্ত্রী হন শেখ হাসিনা।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৭ বার

[hupso]