সর্বশেষ খবর :
মুজিববর্ষ

» ইমরান খান ভারতে মুসলিম নির্যাতন নিয়ে মুখ খুললেন

প্রকাশিত: ২৬. ফেব্রুয়ারি. ২০২০ | বুধবার

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের (সিএএ) জেরে ফের বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে ভারত। গত কয়েকদিন ধরে দেশটির রাজধানী দিল্লির বিভিন্ন স্থানে এই আইনের সমর্থক ও বিরোধীদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলছে।

সবমিলিয়ে দিল্লি এখন রণক্ষেত্রে রূপ নিয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে মুখ খুলেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

ভারতে সংখ্যালঘু মুসলিমদের বিরুদ্ধে চলমান প্রাণঘাতী সহিংসতা বন্ধে এখনই ব্যবস্থা নিতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) এক টুইটার বার্তায় ইমরান খান এই আহ্বান জানান।

গত সোমবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) থেকে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে নতুন করে জোরালো বিক্ষোভ শুরু হয়।

এক পর্যায়ে এই আইনের সমর্থক ও বিরোধীরা সহিংসতায় জড়ান। আর সংঘর্ষ কবলিত এলাকার কয়েকটি মসজিদে ভাঙচুর করে উগ্র হিন্দুত্ববাদীরা।

এমন অবস্থায় এক টুইটার বার্তায় পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, একশ কোটির বেশি মানুষের একটি দেশ নাৎসিবাদে অনুপ্রাণিত বর্ণবাদী মতাদর্শের অনুসারীদের দখলে চলে গেছে।

ইমরান খান আরও বলেছেন, সংখ্যালঘুরা পাকিস্তানের অন্যান্য নাগরিকদের মতোই সমান। কিন্তু দেশটির ক্ষমতাসীন সরকার তা স্বীকার করে নিচ্ছে না। বরং বিভিন্ন মিথ্যে অজুহাতে সংখ্যালঘু মুসলিমদের ওপর নির্যাতন চালাচ্ছে।

 এ দিকে গত কয়েকদিন ধরে চলা সহিংসতায় ভারতের রাজধানী দিল্লিতে এখন পর্যন্ত ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৪০ বার

[hupso]