মুজিববর্ষ

» শার্শার বাগআঁচড়ার জোহরা ক্লিনিকের সুনাম নষ্ট করতে একটি মহল তৎপর

প্রকাশিত: ১৫. নভেম্বর. ২০১৯ | শুক্রবার

এম সাঈদ : যশোরের শার্শার বাগআঁচড়া সাতমাইল জোহরা ক্লিনিকের বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন তথ্য সরবরাহ করে বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করে জোহরা ক্লিনিকের সুনাম নষ্ট করার জন্য একটি মহল প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। মহলটির এহেন কাজের ফলে স্বল্প খরচে সুচিকিৎসা পাওয়া এলাকার জনসাধারণের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগীরা অপপ্রচারকারী মহলটির একাজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

জানা গেছে , শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া সাতমাইলে বিগত কয়েক বছর পূর্বে এই এলাকার সন্তান ডাক্তার হাবিবুর রহমান হাবিব ও তার সহধর্মিণী ডাক্তার নাজমুর নাহার রানী জোহরা মেডিকেল সেন্টার নামে একটি ক্লিনিক খুলে সুনামে সহিত স্ব্ল্প খরচে এলাকার সাধারণ মানুষের সুচিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছেে।বর্তমানেও তা অব্যাহত রয়েছেে।

স্বল্প খরচ ও পরিস্কার পরিচ্ছন্ন পরিবেশে এক্লিনিক থেকে সুচিকিৎসা সেবা পাওয়ায় এই এলাকার রোগীদের এখন আর যশোর, খুলনা ও ঢাকাতে চিকিৎসা জন্য যেতে হচ্ছে না। বড় ধরনের কোন রোগ না হলে বাগআঁচড়া, শংকরপুর, কায়বা, গোগা, উলাসী, হাজিরবাগ, কেরেলকাতা ও চন্দনপুর ইউনিয়ন সহ এই জনপদের মানুষের আর বাহিরে চিকিৎসা সেবা নিতে যাওয়ার প্রয়োজন হয় না।

এ জনপদের সাধারণ শত শত রোগীরা এক্লিনিক থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে বাড়ি ফিরছে। আর এই ক্লিনিক থেকে সুচিকিৎসা নিয়ে রোগীরা সুস্থ্য হাওয়ায় ডাক্তার হাবিবুর রহমান হাবিব ও ডাক্তার নাজমুর নাহার রানীর ব্যাপক পরিচিতি হয়েছে এজনপদে। সুনাম ছড়িয়ে পড়েছে অত্র এলাকায়,সুনাম সৃষ্টি হয়েছে জোহরা মেডিকেল সেন্টার নামের এই সেবামূলক প্রতিষ্ঠানটির। আর এই তিলে তিলে ক্লিনিকটির গড়ে উঠা সুনাম নষ্ট করতে একটি কুচক্রী মহল উঠে পড়ে লেগেছে।

কূচক্রি মহলটি সাংবাদিকদের কাছে একের পর এক মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন তথ্য সরবরাহ করে এ ক্লিনিকের নামে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠানটির সুনাম নষ্টের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

সম্প্রতি উপজেলার কৃষ্ণপুর গ্রামের হাসানের স্ত্রী সোনিয়া খাতুনের পেটের ভিতর তার সন্তান মারা গেলে প্রসূতি সোনিয়া মৃত্যুর মুখে পতিত হয়। এসময় তার স্বামী হাসান জোহরা ক্লিনিকে ভর্তি করলে সিজারিয়ান অপারেশন করে সোনিয়া খাতুনকে ডাক্তাররা সুস্থ্য করে তোলে।বর্তমানে সোনিয়া সুস্থ্য আছে বলে লিখিত ভাবে ক্লিনিক থেকে ছাড়পত্র নিয়ে গেছেে।

প্রসূতি সোনিয়া এক্লিনিক থেকে সুচিকিৎসা নিয়ে মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা পেয়ে সুস্থ হয়ে বাড়িতে ফিরেছে। অথচ অপপ্রচারকারী কূচক্রি মহলটি অপারেশনের সময় অসতর্কতাবশত প্রসূতির গর্ভের শিশু সন্তানের মাথা কেটে তার মৃত্যু হয়েছে বলে সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন তথ্য সরবরাহ করে বিভিন্ন নিউজ পোর্টালে সংবাদ প্রকাশ করে ক্লিনিকের সুনাম নষ্ট করার প্রচেষ্টা চালিয়েছে। প্রসূতির স্বামী হাসান জানান, তার স্ত্রী সুস্থ আছে। তার স্ত্রীকে সে বাড়িতে নিয়ে গেছে।

এব্যাপারে জোহরা মেডিকেল সেন্টারে স্বত্তাধিকারী ডাক্তার হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, এই ক্লিনিকটির মাধ্যমে আমি ও আমার স্ত্রী ডাক্তার নাজমুর নাহার রানী দীর্ঘদিন দিন ধরে এই এলাকার মানুষের চিকিৎসা সেবা দিয়ে আসছি। এখান থেকে চিকিৎসা সেবা পাওয়ায় সাধারণ রোগীদের বড় ধরনের জটিল কোন রোগ না হলে বাহিরে যেতে হচ্ছে না। যার ফলে এ প্রতিষ্ঠানটির সুনাম বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু একটি মহল আমাকে ও আমার স্ত্রীকে হেও প্রতিপণ্ণ করে ক্লিনিকটির সুনাম নষ্ট করার জন্য সাংবাদিকদের কাছে মিথ্যা তথ্য সরবরাহ করে সংবাদ প্রকাশ করেছে। যা সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন।

আর এদিকে কুচক্রী মহলটির এহেন কাজের ফলে স্বল্প খরচে সুচিকিৎসা পাওয়া এলাকার শত শত জনসাধারণের মধ্যে চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। তারা অপপ্রচারকারী মহলটির একাজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৮৮ বার

[hupso]