শিরোনাম :

» কলারোয়ায় করোনা মোকাবেলায় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে নানা উদ্যোগ

প্রকাশিত: ০২. এপ্রিল. ২০২০ | বৃহস্পতিবার

কলারোয়া প্রতিনিধি: কলারোয়া উপজেলাব্যাপী করোনা মোকাবেলায় সতর্কতামূলক কর্মকান্ড পরিচালনাসহ স্বপ্ল আয়ের মানুষের মাঝে স্যানিটারি সামগ্রী ও খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি। সরকারি চলমান খাদ্য সহায়তার পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি পর্যায়ে সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

উপজেলা আওয়ামী লীগ ও ওয়ার্কার্স পার্টিও অনুরূপ কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। যা একটি সময়োপযোগী উদ্যোগ হিসেবে দেখছেন সকলে।

ফলে স্বপ্ল আয়ের মানুষের ঘরে অবস্থানকালীন খাদ্য সংকটে পড়ার তেমন সম্ভাবনা আপাতত: থাকছে না বলে উল্লেখ করা যায়।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম লাল্টু এই সংকটের মধ্যে একাই পথে নেমে জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটানোর ব্যবস্থা, মাইকিং করে মানুষকে ঘরে থাকার তাগিদ দিয়েছেন।

মানুষ যাতে ঘরে থাকে ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে-এজন্য তিনি নিরলস প্রয়াস চালিয়ে যাচ্ছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ স্বপন বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক প্রচারণা, লিফলেট, মাস্ক ও সাবান বিতরণ করেছেন।

একই কর্মকান্ড নিজ উদ্যোগে পরিচালনা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক আহবায়ক সাজেদুর রহমান খান চৌধুরী।

উপজেলা আওয়ামী লীগ এর অঙ্গ সংগঠনগুলো ইতোমধ্যে জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটানো, মাইকিং কলারোয়ার বিভিন্ন স্থানে সচেতনতামূলক প্রচারণা, জীবাণুনাশক স্প্রে ছিটানো, মাইকিং করা, লিফলেট, মাস্ক ও সাবান বিতরণ করেছে।

উপজেলা ওয়াকার্স পার্টিও খাদ্য ও স্যানিটারি সামগ্রী বিতরণ করেছে।

বৃহস্পতিবার উপজেলার খোরদো পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মামুনুর রহমান ব্যক্তি উদ্যোগে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুবুর রহমান মফের উপস্থিতিতে খাদ্য ও স্যানিটারি সামগ্রী বিতররেন।

এরআগে ব্রজবাকসা সততা সংঘ, সাতক্ষীরা অগ্রগতি সংস্থা, সাতক্ষীরা সমিতি, কলারোয়া প্রিমিয়ার ছাত্র সংঘসহ কয়েকটি প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন সহায়তা সামগ্রী বিতরণ করে চলেছে।

উপজেলার চন্দনপুর ইউনিয়নের কার্যক্রমে বিশেষ ভূমিকা রাখছেন অথৈ ইন্টারন্যাশনাল’এর স্বত্তাধিকারী ও উপজেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি মশিউর রহমান।

এ ইউনিয়নের সার্বিক সতর্কতামূলক প্রচারণায় সরাসরি সম্পৃক্ত থাকছেন গয়ড়া সীমান্ত প্রেসক্লাবের সভাপতি আতাউর রহমানসহ নেতৃবৃন্দ।

টালি সামগ্রীর ব্যবসায়ী আবুল হোসেন উপজেলার শ্রীপতিপুর গ্রামে ১শ’ পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন।

কলারোয়ার লক্ষ্মীপুর গ্রামে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন সাংবাদিক ডা: আবু তাহের।

উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি প্রধান শিক্ষক আখতার আসাদুজ্জামান ও বিবিআর এনএস’র সহকারী প্রধান শিক্ষক আলমগীর আজাদ উপজেলার সীমান্তবর্তী বড়ালি গ্রামে ১৫০ টি পরিবারে খাদ্য সহায়তা প্রদান

করেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর হেলাল সোনাবাড়িয়া ইউনিয়নের সকল মসজিদে মুসল্লিদের জন্য সাবান বিতরণ করেন।

এছাড়া আরও অনেক সহায়তা প্রদানের খবর হয়তো উঠে আসে না, জানাও যায় না। থেকে যায় খবরের আড়ালে।

সবমিলিয়ে যে যার অবস্থান ও সামর্থ্য অনুযায়ী মানুষের সেবার ব্রতে আগুয়ান হয়েছেন ও হচ্ছেন। যা আশাবাদী করে তুলছে সকলকে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৬০ বার

[hupso]