শিরোনাম :

» শার্শায় স্বর্ণের চালান নিয়ে সংঘর্ষ,সংবাদ সংগ্রহে সাংবাদিকদের বাধা- প্রাণনাশের হুমকি

প্রকাশিত: ১২. নভেম্বর. ২০১৯ | মঙ্গলবার

নিজস্ব প্রতিবেদক।।শার্শার সেতাই চোরাচালানীদের মধ্যে স্বর্ণের চালান স্বর্ণ নিয়ে সংঘর্ষ হয়েছে। এই ঘটনায় ৬ জন গুরুতর আহত হয়েছে।ঘটনাটি শোনার পর সংবাদ সংগ্রহের জন্য সাংবাদিকরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ফেরার পথে শার্শার শীর্ষ চোরাকারবারি অবৈধ স্বর্ণ ব্যবসায়ী নাসির উদ্দীন ওরফে গোল্ড নাসির বাহিনীর ২০/২৫ জন দূর্বৃত্তরা এসে সাংবাদিকদের উপর হামলা চালিয়ে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করেছে।

এ বিষয়ে সাংবাদিকরা শার্শা থানা সহ পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে।

জানা গেছে, যশোরের শার্শা উপজেলার পুটখালি গ্রামের দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী চোরাকারবারি ওরফে গোল্ড নাসির উদ্দীনের নেতৃত্বে ১৫/১৬ টা মোটরসাইকেল যোগে ২৫/৩০ জন সন্ত্রাসী আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সেতাই গ্রামে স্বর্ণের চালানের দেনদরবার নিয়ে বিবাদ সৃষ্টি করে। এসময় তারা সেতাই গ্রামের মৃত কাশেম আলীর ছেলে সম্রাট (৩৫) রেজাউল (৫০) সাহারুল(৩৭) মৃত ফকির আহমেদের ছেলে মিজান (৩৪) নুরুল ইসলামের ছেলে মনিরুজ্জামান (৩৮) ও কাশেম মোল্লার ছেলে অজেদ আলী(৪৮) উপর হামলা চালিয়ে বেধর মারপিট করে জখম করে।

এসময় গ্রামবাসীরা এগিয়ে এলে, তারা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে পালিয়ে যায়। এরিমধ্যে গ্রামবাসী নাসির বাহিনীর দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসীরা উপজেলার পুটখালির গ্রামের মফিজুর রহমানকে আটকে ফেলে।

ঘটনা শোনার পর স্থানীয় চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ ও বাগআঁচড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ সুকদেব রায় ঘটনাস্থলে পৌছালে গ্রামবাসী আটককৃত সন্ত্রাসী মফিজুর কে তাদের কাছে হস্তান্তর করে। তারা সন্ত্রাসী মফিজুরকে নিয়ে গোগা ইউনিয়ন পরিষদে চলে যায়। পরে পুটখালি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার হাদিউজ্জামানের জিম্মায় সন্ত্রাসী মফিজুরকে ছেড়ে দেয়।

এখবর পেয়ে সাংবাদিকরা তথ্য সংগ্রহের জন্য ঘটনাস্থল সেতাই বাজার ও গোগা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সংবাদ সংগ্রহ করে ফেরার পথে গোগা – বাগআঁচড়া সড়কের পথে মধ্যে সেতাই বাজারে সাংবাদিকদের গতিরোধ করে থামিয়ে অতর্কিত ভাবে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে হামলা চালিয়ে শারীরিক ভাবে লাঞ্ছিত করে। এসময় বাগআঁচড়া প্রেসক্লাবে সদস্য জি বাংলা টিভি ও দৈনিক দৃষ্টিপাতের প্রতিনিধি সেলিম আহমেদকে সন্ত্রাসী নাসিরের অস্ত্রবহনকারী এক দূর্বৃত্ত শর্টগান দিয়ে বাড়ি মেরে আহত করে। এমনকি নাসির বাহিনীর সন্ত্রাসীরা এসময় সাংবাদিকদের সামনে জোর পুর্বক টাকা গুজে দিয়ে ছবি তুলে ফাসানোর চেষ্টা করেে। এসময় তারা অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে এবং প্রাননাশের হুমকি দেয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী সাংবাদিকদের সাহায্য করতে ছুটে এলে সন্ত্রাসীরা ঘটনাস্থল ত্যাগ করে।

এ বিষয়টি নিয়ে সাংবাদিকরা শার্শা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

এব্যাপারে গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ বলেন স্বর্ণের বিষয়ে তার জানা নেই। তবে গন্ডগোলের বিষয় স্থানীয় ভাবে মিটিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে শার্শা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আতাউর রহমান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি, অভিযোগ দিয়ে যান। তদন্ত করে আইন অনুযায়ী ব্যাবস্থা গ্রহন করা হবে।

এবিষয়ে এএসপি নাভারণ সার্কেল জুয়েল ইমরান বলেন ঘটনাটি জেনেছি, দ্রুত আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২০৪৬ বার

[hupso]