» স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে ধর্মঘট স্থগিত করে বাস চলাচল শুরু

প্রকাশিত: ২১. নভেম্বর. ২০১৯ | বৃহস্পতিবার

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে ধর্মঘট স্থগিত করে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সকালে রাজধানী ঢাকা থেকে বিভিন্ন স্থানে বাস চলাচল শুরু হয়েছে। সকালে সায়দাবাদ বাসস্ট্যান্ড থেকে দূরপাল্লার বাসগুলো ছেড়ে যেতে দেখা গেছে।

এছাড়া স্বাভাবিক হয়েছে ট্রাক চলাচলও। সকাল থেকে কোথাও কোনও বাধা সৃষ্টি হয়নি। গতকাল রাজধানীর যে সড়কগুলো ফাঁকা ছিলো। আজ তার সম্পূর্ণ বিপরীত চিত্র। গণপরিবহন রাস্তায় নামার ফলে রাজধানী তার আসল চেহারা ফিরে পেয়েছে।

সকালে রাজধানীর শাহবাগ,পল্টন ,গুলিস্তান মতিঝিল, মহাখালী সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, এসব রুটে গতকালের চেয়ে তুলনামূলক গণপরিবহনের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। শাহবাগ থেকে মৎস্য ভবন পর্যন্ত গাড়ির দীর্ঘ লাইন অর্থাৎ জ্যাম লক্ষ্য করা গেছে। তাছাড়া পল্টন মোড় থেকে গুলিস্তান পর্যন্ত গণপরিবহনের জ্যাম ছিল।

এর আগে ঢাকার ধানমণ্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়িতে বুধবার রাতে প্রায় চার ঘণ্টার বৈঠকের পর ধর্মঘট প্রত্যাহার করেন ট্রাক ও কভার্ডভ্যান মালিক-শ্রমিকরা। মধ্যরাতে বৈঠক শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল সাংবাদিকদের বলেন, পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা যে নয়টি দাবি তুলেছেন, তা বিবেচনা করবেন তারা।

ট্রাক মালিক-শ্রমিকরা ঘোষণা দিয়ে ধর্মঘট শুরু করলেও বাস শ্রমিকরা অঘোষিত ধর্মঘট পালন করে আসছিলেন। তবে দাবি একই রকম হওয়ায় বাস শ্রমিকরাও কাজে ফিরবেন বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সড়কে অচলাবস্থা নিরসনে এই বৈঠকে উপস্থিত না হলেও বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি শাজাহান খান বলেছেন, নতুন আইনের কিছু বিষয় নিয়ে ফেডারেশনের নেতারা বৃহস্পতিবার আলোচনায় বসবেন। নতুন সড়ক পরিবহন আইনের কয়েকটি ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে বুধবার থেকে ধর্মঘটের ডাক দেয় ট্রাক ও পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা।

এদিকে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না দিলেও দুদিন ধরে বিভিন্ন রুটে বাস চলাচল বন্ধ রাখছিলেন চালকরা, যাতে রাজধানীর সঙ্গে সারা দেশের সড়ক যোগাযোগ কার্যত বন্ধ হয়ে যায়।
এই অচলাবস্থা কাটাতে বুধবার রাতে ধানমণ্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাড়িতে বৈঠক ডাকা হয়। এতে আনুষ্ঠানিকভাবে ধর্মঘট আহ্বানকারী ট্রাক-কভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের ১০ নেতার পাশাপাশি বাস মালিক সমিতির নেতা খন্দকার এনায়েত উল্লাহও ছিলেন।

রাত ৯টায় শুরু হওয়া এই বৈঠকে পরিবহন মালিক-শ্রমিক নেতাদের পাশাপাশি সড়ক পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব নজরুল ইসলাম, বিআরটিএ কর্মকর্তারাও ছিলেন। প্রায় চার ঘণ্টা বৈঠক শেষে রাত ১টার পর মন্ত্রীর সঙ্গে সাংবাদিকদের সামনে এসে ধর্মঘট তুলে নেয়ার ঘোষণা দেন ট্রাক-কভার্ড ভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুস্তম আলী খান।

 

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ১০৭ বার

[hupso]